যুক্তরাষ্ট্রে তেলের দাম ২১ বছরে সর্বনিম্ন

সোমবার (২০ এপ্রিল) বিবিসি জানায়, যুক্তরাষ্ট্রের ওয়েস্ট টেক্সাস ইন্টারমিডিয়েটের (ডব্লিউটিআই) প্রতি ব্যারেলের দাম ১৪ শতাংশ কমে হয়েছে ১৫ দশমিক ৬৫ ডলার, যা ১৯৯৯ সালের পর এ প্রথম।

করোনা ভাইরাস মহামারির কারণে তেলের চাহিদা ব্যাপকভাবে কমেছে। যুক্তরাষ্ট্রে তেলের যোগান বিপুল থাকায় দাম আরও কমার সম্ভাবনা রয়েছে।

তেলের উৎপাদন কতটুকু হবে তা নিয়ে উৎপাদনকারীদের মধ্যে লড়াই এবং চাহিদা নিম্নমুখী হওয়ায় বিপাকে পড়েছে তেলশিল্প। চলতি মাসের শুরুতে তেল উৎপাদনকারী দেশগুলোর সংগঠন ওপেক এবং এর মিত্ররা বিশ্বজুড়ে তেলের উৎপাদন ১০ শতাংশ কমানোর সিদ্ধান্ত নেয়। এর আগে কখনো উৎপাদন এতটা কমানো হয়নি।

তারপরও বিশেষজ্ঞদের অনেকেই বলছেন, উৎপাদন যতটুকু কমানো হয়েছে, তা যথেষ্ট নয়। শুধু ওপেকের চুক্তি তেলের বাজারে ভারসাম্য বজায় রাখতে পারবে না।

অন্যদিকে ইউরোপের ব্রেন্ট অয়েলের দাম ০ দশমিক ৮ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে প্রতি ব্যারেলে ২৭ দশমিক ৮৭ ডলা

Banglanews24

Please follow and like us:
error0
Tweet 20
fb-share-icon20
error

Enjoy this blog? Please spread the word :)