Bangladeshis for Biden Council – বাইডেনকে জেতাতে গঠিত হল ‘বাংলাদেশি ফর বাইডেন ন্যাশনাল কাউন্সিল’

বাইডেনকে জেতাতে গঠিত হল ‘বাংলাদেশি ফর বাইডেন ন্যাশনাল কাউন্সিল’

news-image

ডেস্ক রিপোর্টঃ

আসন্ন জাতীয় নির্বাচনে ডেমোক্র্যাটিক পার্টির প্রেসিডেন্ট প্রার্থী জো বাইডেনের সমর্থনে প্রবাসীদেরকেও সংগঠিত করা হচ্ছে। এ লক্ষ্যে ‘সাউথ এশিয়ান্স ফর বাইডেন’ মোর্চার অধীনে গঠিত হলো ‘বাংলাদেশি ফর বাইডেন ন্যাশনাল কাউন্সিল’। এর জাতীয় পরিচালকের দায়িত্ব পেয়েছেন ম্যারিল্যান্ডে বসবাসরত ডেমোক্র্যাটিক পার্টিতে এশিয়ান-আমেরিকানদের প্রিয় ব্যক্তিত্ব আনিস আহমেদ। তারই সার্বিক তত্ত্বাবধানে ৭ সেপ্টেম্বর যুক্তরাষ্ট্রের বেশ কটি স্টেটের ডাইরেক্টর, ডেপুটি ডাইরেক্টর এবং সমন্বয়কারির নাম ঘোষণা করা হয়েছে।

এ উপলক্ষে প্রদত্ত এক বিবৃতিতে ‘সাউথ এশিয়ান্স ফর বাইডেন’র জাতীয় পরিচালক নেহা দেওয়ান বলেন, যুক্তরাষ্ট্রে দ্রুত বর্ধনশীল কমিউনিটির অন্যতম হচ্ছেন বাংলাদেশিরা। তাই, আসন্ন নির্বাচনে জো বাইডেন ও তার রানিংমেট কমলা হ্যারিসের বিজয় ত্বরান্বিত করতে তাদের ভূমিকারও গুরুত্ব রয়েছে। বাংলাদেশির মধ্যে যারা এখনও ভোটার হিসেবে তালিকাভুক্ত হননি, তাদেরকে সে ব্যাপারে সহায়তা এবং আগাম ভোটে অংশগ্রহণে উদ্বুদ্ধ করার দায়িত্বটি যথাযথভাবে সম্পাদনের স্বার্থে আনিস আহমেদের নেতৃত্বে স্টেট কমিটিগুলো কাজ করবে।

আনিস আহমেদ বলেন, আমি দীর্ঘদিন যাবত প্রবাসী বাংলাদেশিদের মূলধারার রাজনীতিতে সম্পৃক্ত। সে অভিজ্ঞতাকে ৩ নভেম্বরের নির্বাচনে বাইডেন-হ্যারিসের বিজয়ের কাজে লাগাবো। বাইডেন-হ্যারিসের পক্ষে প্রচারণা, তহবিল গঠন এবং কেন্দ্রে গিয়ে ভোট প্রদানে সর্বাত্মকভাবে সচেষ্ট থাকবেন এবং অন্যদেরকে উজ্জীবিত করবেন এমন বিশিষ্টজনদের সমন্বয়ে স্টেট সমূহের সাংগঠনিক কাঠামো তৈরী করা হচ্ছে। এজন্যে সকলের আন্তরিক সহযোগিতার বিকল্প নেই।

উল্লেখ্য, ‘দক্ষিণ এশিয়ান্স ফর বাইডেন’র সিনিয়র এডভাইজার হচ্ছেন রাষ্ট্রদূত ওসমান সিদ্দিক। তারও সুপারভিশন থাকবে অন্যদেশগুলোর মত বাংলাদেশিদের কার্যক্রমেও। অর্থাৎ সকলে একজোট হয়ে বাইডেনকে বিজয়ের জন্যে মাঠে থাকবেন। যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনে আগে কোন প্রেসিডেন্ট প্রার্থীর পক্ষেই দক্ষিণ এশিয়ানরা এভাবে জোটবদ্ধ হয়ে মাঠে নামেননি। এবার কমলা হ্যারিসকে ভাইস প্রেসিডেন্ট প্রার্থী করার পরই মার্কিন রাজনীতিতে বাংলাদেশিসহ দক্ষিণ এশিয়ানদের কদর বেড়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।

বাংলাদেশিজ ফর বাইডেন’র কমিউনিকেশন্স ডাইরেক্টর নতুন প্রজন্মের আনিকা রহমান বলেন, মার্কিন সমাজ-ব্যবস্থাকে বৈচিত্র্যমণ্ডিত করার ক্ষেত্রে বাংলাদেশি আমেরিকানরা হচ্ছেন গুরুত্বপূর্ণ একটি ফ্যাক্টর। আর সে বিষয়টি জোরালোভাবে উপস্থাপনের সুযোগ এসেছে নির্বাচন ঘিরে গঠিত এই জোটের মধ্যদিয়ে। বাইডেন এবং কমলাকে জয়ী করার পথ বেয়েই মূলত: অভিবাসী সমাজের ভবিষ্যত সংহত হবে।

এখানে ‘বাংলাদেশিজ ফর বাইডেন’ মোর্চায় বিভিন্ন স্টেটের পরিচালকগণের মধ্যে আছেন ভার্জিনিয়া-শরাফত হোসেন বাবু, নিউইয়র্ক-মাফ মিসবাহ উদ্দিন, ম্যারিল্যান্ড – গোলাম মাওলা, ওয়াশিংটন-তাহমিনা ওয়াটসন, টেক্সাস-নাহিদা আল, নর্থ ক্যারলিনা-রশিদুল হাসান, নিউ জার্সি-ফারুক এ হোসেন, ফ্লোরিডা-সাঈদ হারুন, ম্যাসেচুসেটস-নাজদা আলম, জর্জিয়া-মোহাম্মদ আলী হোসেন, পেনসিলভেনিয়া-রফিকুল আমিন ভূইয়া। বাংলাদেশি অধ্যুষিত মিশিগান, ইলিনয়, ক্যালিফোর্নিয়া, আরিজোনা, কানেকটিকাট প্রভৃতি স্টেটের তালিকাও শীঘ্রই ঘোষণা করা হবে বলে জানা গেছে। এদিকে, ঘোষিত স্টেট কমিটিতে নিউইয়র্কে উপ-পরিচালক হিসেবে রয়েছেন মোর্শেদ আলম এবং প্রধান সমন্বয়কারি হলেন করিম চৌধুরী। ভার্জিনিয়া উপ-পরিচালক Zia Udiin Ahmed, ম্যারিল্যান্ডে উপ-পরিচালক হিসেবে রয়েছে শহীদ খান চৌধুরী, সমন্বয়কারি কবিরুল ইসলাম। নিউ জার্সির উপ-পরিচালক হচ্ছেন আতিকুর রহমান ইউসুফজাই। ফ্লোরিডার উপ-পরিচালক-মোজাহারুল ইসলাম। পেনসিলভেনিয়ায় উপ-পরিচালক-কাজী মতিউর রহমান।

Please follow and like us:
error0
Tweet 20
fb-share-icon20
error

Enjoy this blog? Please spread the word :)