ইউটিউবে কনসার্ট সিরিজ শুরু করলো ‘পিংক ফ্লয়েড’

ব্রিটিশ ব্যান্ড ‘পিংক ফ্লয়েড’ গড়ার মাত্র ৩ বছরের মাথায় ব্যান্ড ছেড়ে যান প্রতিষ্ঠাতা সদস্য সিড ব্যারেট। তবে ‘পিংক ফ্লয়েড’-এর সাফল্যের যাত্রাটা শুর করে দিয়ে যান শুরুর দিকের এই লিড ভোকালিস্ট। পরবর্তীতে ভোকালের দায়িত্ব পড়ে ডেভিড গিলমোরের ওপর। ১৯৭৯ সালে কিবোর্ডিস্ট রিচার্ড রাইট ও ১৯৮৫ সালে বেজিস্ট রজার ওয়াটার্স ব্যান্ড ত্যাগ করে নিজেদের সলো মিউজিকে ব্যস্ত হয়ে পড়েন। ওয়াটার্স ব্যান্ডে আর ফিরে না এলেও রাইট পরবর্তীতে আবারও ব্যান্ডে ফিরে আসেন। এরপর ডেভিড গিলমোর, রিচার্ড রাইট ও ড্রামার নিক ম্যাসন মিলে ৩টি অ্যালবাম রিলিজ করেন।

এত বিছিন্নতার পরেও বারবার ভক্তদের কাছে ফিরে আসে ব্যান্ডটি। বিভিন্নভাবে কনসার্টে গিলমোর, ওয়াটার্স ও ম্যাসন একসঙ্গে হলেও ২০১৪ সালে ‘অ্যান্ডলেস রিভার’-এর পর নতুন কোনো অ্যালবাম রিলিজ হয়নি ব্যান্ডটির। সংগীতপ্রেমীদের কাছে বিশ্বজুড়ে ‘পিংক ফ্লয়েড’ এক দ্যোতনার নাম। সংগীতের জাদুতে বিভোর হয়ে যাওয়ার নাম ‘পিংক ফ্লয়েড’। সেই ব্যান্ডটি আবারও নতুনভাবে ফিরে এলো ভক্তদের মাঝে। ব্যান্ডের অফিশিয়াল পেজে ঘোষণা দেওয়া হয় বর্তমান করোনা ভাইরাসের প্রভাবে বিশ্বের ঘরবন্দি মানুষদের জন্য তাদের অফিশিয়াল ইউটিউব চ্যানেলে কনসার্ট সিরিজ পোস্ট করবে। প্রতি সপ্তাহে একটি করে সিরিজের পর্ব পোস্ট করা হবে। যেখানে তাদের আর্কাইভ থেকে বিভিন্ন ভিডিও পোস্ট করা হবে।

যার শুরু হয় ১৭ এপ্রিল। তাদের লাইভ অ্যালবাম ‘পালস’-এর কনসার্ট ফিল্ম পোস্ট করে তারা। ভিডিও পোস্টের সঙ্গে করোনা আক্রান্তদের ফান্ডের জন্য ডোনেশন অপশন রাখা হয়েছে। কেউ চাইলে এর মধ্য দিয়ে সহযোগিতা করতে পারবেন। ব্যান্ড থেকে জানানো হয়, বিশ্ব জুড়ে মানুষ এখন ঘর বন্দি। এই সময় দীর্ঘ হওয়ার সঙ্গে মানুষের মধ্যে একঘেঁয়েমি ও হতাশা তৈরি হচ্ছে। তাই তাদের ভক্তদের এই সময়টা ভালো রাখার জন্য তারা এ উদ্যোগ নিয়েছেন। যেখানে তাদের পুরনো অনেক আর্কাইভ দেখানো হবে। ‘পালস’-এর পর ‘ডিভিশন বেল’ ট্যুর, ‘কম্ফোর্টেবলি নাম্ব’ ট্যুরের ভিডিও পোস্ট করা হবে। এছাড়া অনেক ছবিও পোস্ট করা হবে এই সময়ে।

Please follow and like us:
error0
Tweet 20
fb-share-icon20
error

Enjoy this blog? Please spread the word :)